লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৯ জানুয়ারি ২০১৫

প্রমোটিং একসেস টু জাস্টিস এন্ড হিউম্যান রাইটস ইন বাংলাদেশ

প্রমোটিং একসেস টু জাসটিস এন্ড হিউম্যান রাইটস ইন বাংলাদেশ প্রকল্প

প্রমোটিং একসেস টু জাসটিস এন্ড হিউম্যান রাইটস ইন বাংলাদেশ প্রকল্পটি ইউএনডিপি-র আর্থিক সহায়তায় আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়িত হচ্ছে। উক্ত প্রকল্পটি সাফল্যের সঙ্গে গত জুলাই ২০০৭ হতে জুন ২০১০ পর্যন্ত বাস্তবায়িত হয়েছে এবং জুন ২০১২ পর্যন্ত আরো দুবছরের জন্য এর সময়সীমা বর্ধিত করা হয়েছে। প্রথম তিন বছর প্রকল্পটির দুটি মূল বিষয় বা কম্পোনেন্ট যথাঃ মানবাধিকার রক্ষা এবং আইনগত সুবিধা লাভের অধিকার সুনিশ্চিত করার বিষয়ে কাজ করেছে। প্রকল্প বর্তমানে নিম্নবর্ণিত তিনটি মূল কম্পোনেন্ট এর ওপর কাজ করছে, এগুলো হলোঃ

১। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর কৌশলগত ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত দক্ষতা বৃদ্ধি

২। আইনগত সহায়তা প্রদানের সুযোগ বৃদ্ধি

৩। আইন সংস্কার (বিচার ব্যবস্থার উন্নতির লক্ষ্যে বিকল্প পদ্ধতিতে বিরোধ নিষ্পত্তিসহ দেওয়ানী কার্যবিধি ও ফৌজদারী কার্যবিধিসহ অন্যান্য প্রাসঙ্গিক আইনসংস্কারের বিষয়ে লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান)

প্রকল্পের সম্পাদিত এবং চলমান উল্লেখযোগ্য কার্যক্রমসমুহ

(জুলাই ২০০৭-জানুয়ারী ২০১১)

১। জাতীয় মানবাধিকার কমিশন প্রতিষ্ঠায় প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আইন,২০০৯ এর খসড়া তৈরি, চূড়ান্ত করা এবং আইনটি প্রণয়নের বিষয়ে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা প্রদান করেছে। প্রাথমিক পর্যায়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন এর কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য অস্থায়ীভাবে ৫ জন কর্মকর্তা নিয়োগসহ বিভিন্ন লজিস্টিক ও টেকনিক্যাল সহযোগিতা প্রদান করেছে।

২। আইনজীবিদের জন্য মানবাধিকার বিষয়ে প্রশিক্ষণ

সরকারী আইন কর্মকর্তা ও আইনজীবিগণকে মানবাধিকার বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের জন্য লিগ্যাল এডুকেশন ট্রেনিং ইন্সস্টিটিউট এর মাধ্যমে ৭টি মৌলিক প্রশিক্ষণ কোর্স সম্পন্ন করেছে। ঢাকা, খুলনা ও সিলেটে আয়োজিত এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচিতে ৩৬টি জেলার ১৭৫ জন আইন কর্মকর্তা ও আইনজীবিগণ অংশগ্রহণ করেছেন।

এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচির একটি উল্লেখযোগ্য অর্জন হলো মানবাধিকার রক্ষায় আইনকর্মকর্তা ও আইনজীবিগণের অগ্রণী ভূমিকা পালন করার বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি। এছাড়াও দরিদ্র ও সুবিধাবঞ্চিতদের আইনগত অধিকার নিশ্চিত করার জন্য বিনা পারিশ্রমিকে আইনী সহায়তা বা প্রবোনো লিগ্যাল সার্ভিস প্রদান বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করার বিষয়েও এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। অন্যদিকে এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচি থেকে আইনজীবিগণ জাতীয় ও আন্তর্র্জাতিক মানবাধিকার বিষয়ক আইন এবং এগুলোর প্রয়োগ সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করেছেন।

৩। বাংলাদেশের আইনসমূহের অনুবাদ ও প্রকাশনা

১৯৮৭ সালের বাংলা ভাষা প্রচলন আইন প্রণীত হওয়ার পর সকল আইন ও অধ্যাদেশ বাংলায় প্রণীত হচ্ছে। ১৮৩৬-১৯৮৬ সাল পর্যনত সকল আইন ও অধ্যাদেশ ইংরেজিতে প্রণীত। সাধারণ মানুষের নিকট ইংরেজিতে প্রণীত আইনসমূহ সহজবোধ্য করার লক্ষ্যে এবং আন্তর্জাতিক স্টেকহোল্ডারদের বাংলায় প্রণীত আইনসমূহের বিষয়ে সম্যক ধারনা লাভ করর নিমিত্ত প্রকল্পের আওতায় গত সেপ্টেম্বর মাসে বাংলাদেশ কোড এর সর্বশেষ ইংরেজি Volume No. XVI এবং সর্বপ্রথম বাংলা ভলিউম ২৭ যথাক্রমে বাংলা ও ইংরেজিতে অনুবাদ সম্পন্ন করা হয়েছে। পরবর্তীতে ব্যবহারিক প্রয়োজন অনুসারে লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ কর্তৃক নির্ধারিত ৫০টি আইন অনুবাদের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

৪। আইন মন্ত্রণালয়ের আইসিটি সেল

আইন মন্ত্রণালয়ে একটি কার্যকর আইসিটি সেল তৈরির জন্য এই প্রকল্প সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করে আসছে। এর মূল উদ্দেশ্য হলো মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম এবং আইন সংক্রান্ত বিষয় সম্পর্কে আইনজীবী এবং সাধারণ মানুষ যাতে সহজে তথ্য পেতে পারে তা নিশ্চিত করা, যা পরোক্ষভাবে সুশাসন এবং বিচার ব্যবস্থায় প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করবে।

আইসিটি সেল এর জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ক্রয়, জনবল নিয়োগসহ বর্তমানে প্রকল্প আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের দুটি বিভাগের ওয়েবসাইট তৈরি এবং বাংলাদেশ কোড এর হাল নাগাদ করার কাজে সহযোগিতা করছে। এছাড়াও এই প্রকল্প মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য আইসিটি প্রশিক্ষণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

৫। অ্যাটর্ণী জেনারেল এর কার্যালয়ের আইন কর্মকর্তাদের আইসিটি বিষয়ে প্রশিক্ষণ

বিজ্ঞ অ্যাটর্ণী জেনারেলসহ অ্যাটর্ণী জেনারেল এর কার্যালয়ের ৬০ জন আইন কর্মকর্তাদের আইসিটি বিষয়ে মৌলিক এবং উন্নততর প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। অন্যান্য আইন কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণের জন্য কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

৬। প্রবোনো বা বিনা পারিশ্রমিকে আইনগত সহযোগিতা প্রদান করার বিষয়ে প্রমোশনাল কার্যক্রম

দরিদ্র ও সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার ও আইনগত আশ্রয় লাভের সুযোগ সুনিশ্চিত করতে এই প্রকল্প শুরু থেকেই প্রবোনো বা বিনা পারিশ্রমিকে আইনগত সহযোগিতা প্রদান করার বিষয়ে প্রমোশনাল কার্যক্রম চালিয়ে আসছে। এজন্য ৬টি বিভাগীয় শহর এবং একটি জেলা শহরের বার এসোসিয়েশন এর আইনজীবিদের সঙ্গে পরামর্শমূলক সভার আয়োজন করেছে। এর ফলশ্রুতিতে খুলনা, বরিশাল এবং বরগুণায় ৩টি প্রবোনো লিগ্যাল রিসোর্স ফোরাম গড়ে ওঠেছে। উক্ত ফোরামগুলোর মুল লক্ষ্য হচ্ছে দরিদ্র ও সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠী বিশেষ করে নারী, শিশু, সুন্দরবনের জেলে, কাঠুরে ও মৌয়ালদের বিনা পারিশ্রমিকে আইনগত সহযোগিতা প্রদান।


Share with :